কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ঃ

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে মামলা উত্তোলনের জন্য ভ্যান চালক বশির উদ্দিন শেখ হত্যা মামলার বাদী মিঠন শেখ ও তার পরিবারকে বাড়ির উপর আসিয়া বিভিন্ন প্রকার ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আসামীর আত্বীয়- স্বজনদের বিরুদ্ধে। এছাড়াও বিবাদী পক্ষের ঘরবাড়ি ভাংচুর ও উচ্ছেদ করে দেওয়া হবে বলে মিথ্যা প্রচার – প্রচারনা করে প্রশাসনিকভাবে হয়রানির করারও হুমকি দেওয়া হয়েছে।

ঘটনাটি উপজেলার চাপড়া ইউনিয়নের উত্তর পারসাঁওতা গ্রামে ঘটেছে। বাদী মিঠন শেখ ওই গ্রামের মৃত বশির উদ্দিন শেখের পুত্র এবং বিবাদীগণ একই এলাকার বাসিন্দা।
আজ রোববার সকালে সরেজমিন গেলে, মিঠন শেখ বলেন, গত ২৪/০৮/২০২০ ইং তারিখ বিকেলে আমার বাবা তার ব্যাটারিচালিত ভ্যান লইয়া ভাড়ার উদ্দেশ্যে বের হয়ে সঠিক সময়ে আর ফিরে না আসলে অনেক খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে পরেরদিন ২৫/০৮/২০২০ ইং তারিখ সকাল ৮ টার সময় কুষ্টিয়া মডেল থানাধীন মেটন-চর গোপালপুর এলাকা থেকে মৃত অবস্থায় পাই।পরবর্তী আমি বাদী জজয়ে ২৬/০৮/২০২০ ইং তারিখ অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করলে (মামলা নং ৩৪)  পুলিশ তদন্ত করিয়া উক্ত মামলায় এ/পি উত্তর পারসাঁওতার মৃত সালাম শেখের ছেলে মোঃ রঞ্জু হোসেন (৩০) গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে।
উক্ত আসামী গ্রেফতারের পর থেকেই আসামীর শ্বশুড় সাইদুল ইসলাম (৫০), ভগ্নিপতি শাহিন (৩৫), শ্বাশুড়ী সাহেবা (৪৫), স্ত্রী পারভীন (২৫)  আমার বাড়ির উপর এসে মামলা উত্তোলনের জন্য বিভিন্ন ভয়ভীতি ও প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে আসছে।গত ২৭/০৯/২০২০ ইং তারিখ সকাল ১০ টার দিকে আবারো তারা বাড়ির উপর এসে হত্যার হুমকি দিয়েছে।এছাড়াও আসামীদের ঘরবাড়ি ভেঙে উচ্ছেদ করে দেওয়া হবে বলে মিথ্যে রটাচ্ছে। তিনি আরো বলেন, আমার বাবা মারা গেছে আবার আমার ও আমার পরিবারকে হত্যার হুমকি দেওয়া হচ্ছে।এবিষয়ে কুমারখালী থানায় একটি জিডি করা হয়েছে।
এবিষয়ে আসামীর শ্বাশুড়ী সাহেবা খাতুন বলেন, আমরা বাদীর বাড়িতে যায়নি।বাদী নয়,এলাকার কিছু মাতব্বর এক মাসের মধ্যে উচ্ছেদের কথা বলেছে।
 কুমারখালী থানার ওসি (ভারপ্রাপ্ত) মামুনুর রশীদ বলেন, এলাকায় শান্তি রক্ষার্থে পুলিশ সোচ্চার আছে।এবিষয়ে উভয়পক্ষ সাধারণ ডায়েরী দায়ের করেছে।বিষয়টি তদন্তধীন।

Sharing is caring!