এসএনবি নিউজ ডেস্ক:


বাংলাদেশে যুদ্ধবিমানসহ সব ধরনের আকাশযান তৈরি হবে বলে আশা ব‌্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘আশা করি, একদিন আমরা যুদ্ধবিমান, পরিবহন বিমান ও হেলিকপ্টার তৈরি করতে সক্ষম হবো। আমরা মহাকাশে যেতেও সক্ষম হবো। সে লক্ষ্যে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাবো।

রোববার (২০ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ বিমান বাহিনী আয়োজিত রাষ্ট্রপতি কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ অনুষ্ঠানে যুক্ত হন তিনি। যশোরে বাংলাদেশ বিমান বাহিনী একাডেমিতে এ কুচকাওয়াজ হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সম্প্রতি লালমনিরহাটে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এভিয়েশন অ্যান্ড এয়ার স্পেস বিশ্ববিদ্যালয় চালু করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বিমান চলাচল, নির্মাণ, গবেষণা, মহাকাশ  ও বিজ্ঞান চর্চা হবে। যার মাধ্যমে একদিন আমরা এই দেশেই যুদ্ধবিমান, পরিবহন বিমান ও হেলিকপ্টার তৈরি করতে পারব।তিনি বলেন, ‘শুধু যুদ্ধবিমান নয়, একদিন আমরা মহাকাশেও পৌঁছে যেতে পারি। সেই প্রচেষ্টাও আমাদের থাকবে।’

বিশ্বের আধুনিক বাহিনীগুলোর সঙ্গে তাল মেলাতে এবং বিশ্ব দরবারে মাথা উঁচু করে চলার জন্য প্রশিক্ষণের মাধ্যমে নিজেদের উপযুক্ত করে গড়ে তুলতে বিমান বাহিনীর সব সদস্য, বিশেষত নবীন ক্যাডেটদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

দেশের সশস্ত্র বাহিনীকে আরও আধুনিক সরঞ্জাম ও প্রযুক্তি সরবরাহ করার বিষয়ে দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, ‘বাংলাদেশ যাতে পিছিয়ে না পড়ে, সেজন্য সশস্ত্র বাহিনীতে নতুন প্রযুক্তি অন্তর্ভুক্ত করার জন্য যা যা প্রয়োজন সরকার তা করছে। এভাবেই আমাদেরকে গড়ে তুলতে হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে অংশগ্রহণ করি, যেখানে অন্যান্য দেশের সেনা সদস্যরাও আছে। তাদের সাথে আমাদের তাল মিলিয়ে চলতে হবে।’

Sharing is caring!